সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:৪২ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
আপডেট খবর পেতে চোঁখ রাখুন গফরগাঁও টাইমসে ** গফরগাঁওয়ে উদ্বোধন হয়েছে "জম জম ফুড" ঠিকানাঃ হাজী  নিজাম উদ্দীন মার্কেট,রুপালি ব্যাংকের সাথে, আলাল  মার্কেট সংলগ্ন,কলেজ রোড়,গফরগাঁও পৌরসভা।

সাংস্কৃতিক গ্রাম ভিটিপাড়ায়- কাজল রেখা

জাহাঙ্গীর গাজী বিশেষ প্রতিনিধি / ৪৮৭ বার পড়া হয়েছে
ই-পেপার ই-পেপার
আপডেট সময় : সোমবার, ১৯ ডিসেম্বর, ২০২২, ৯:৫৫ অপরাহ্ণ

গাজীপুরের শ্রীপুর থানার প্রহলাদপুর ইউনিয়নের ভিটিপাড়ায় বিজয় মাস ও বিজয় উল্লাস উপলক্ষে ২ দিন ব্যাপি অনুষ্টিত হচ্ছে, বাঙ্গালী সংস্কৃতির ঐতিয্যবাহী,আজগর আলী মাস্টারের নির্দেশনায় যাত্রাপালা “কাজল রেখা “ও “আলোমতি প্রেম কুমার” ।

অষ্টম ও নবম শতকেও এদেশে পালাগান ও পালার অভিনয় প্রচলিত ছিল। শ্রী চৈতন্যদেবের আবির্ভাবের আগেও রাঢ়, বঙ্গ, সমতট, গৌড়, পুণ্ড্র, চন্দ্রদ্বীপ, হরিকেল, শ্রীহট্টসহ সমগ্র ভূখণ্ডে পালাগান ও কাহিনিকাব্যের অভিনয় প্রচলিত ছিল। ধর্মীয় বা কোনো উৎসবে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যাওয়ার যে রীতি সেখান থেকেই যাত্রা শব্দটি এসেছে।

সত্তর দশকের শেষভাগ এবং বিশেষ করে আশির দশকে যাত্রাশিল্পে অবক্ষয় শুরু হয়। তখন যাত্রার নামে অশ্লীল নৃত্য পরিবেশিত হতে থাকে। আবহমান কাল ধরে চলে আসা এই শিল্প ধ্বংসের মুখোমুখি হয় যাত্রার আসরে জুয়া ও অশালীন নাচের কারণে। যাত্রার আসরে সখী নৃত্য একসময় প্রচলিত ছিল যা কিছুটা অসংস্কৃত হলেও তাকে ঠিক অশালীন বলা যেত না। কিন্তু পরবর্তীতে গ্রামগঞ্জে পর্নগ্রাফির প্রভাবে প্রিন্সেসের নাচের নামে যাত্রার আসরে অশালীনতা ছড়িয়ে পড়ে। পরে যাত্রার প্রিন্সেস, সখীনৃত্য ইত্যাদির নামে চলে অশালীন নৃত্য,যাত্রাকে অশালীনতা থেকে মুক্ত করতে এবং যাত্রা শিল্পকে বাঁচাতে নতুন শতকে তৈরি হয় যাত্রা নীতিমালা। ২০১২ সালে যাত্রা নীতিমালা গেজেটভুক্ত হয়।

অশ্লিলতা কে বিদায় জানিয়ে, অবসর প্রাপ্ত শিক্ষক আজগর আলী মাস্টার ও এই গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দাদের প্রচেষ্ঠায় প্রতি বছর অনুষ্টিত হয় এই হারিয়ে যাওয়া বিলুপ্ত প্রায় “যাত্রাপালা” এছারাও বিভিন্ন সময় বিভিন্ন সংস্কৃতি অনুষ্ঠান স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে উৎযাপন করে বলেই এ গ্রামের নামের পাশে সংস্কৃতি গ্রাম নামে পরিচিত।

উক্ত বিজয় মাস ও বিজয় উল্লাস উপলক্ষে যাত্রাপালায় প্রধান অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,প্রহলাদপুর ইউনিয়নের বারবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর সন্মানীত সভাপতি জনাব নুরুল হক আকন্দ।
বরেন্য অতিথী ১ম ও ২য় দিন
আব্দুস সাত্তার আকন,সভাপতি পুলিশিং কমিউনিটি প্রহলাদপুর ইউনিয়ন,জনাব মোঃ মুনসুর আহম্মেদ,সহ-সভাপতি প্রহলাদপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলী।
প্রধান আলোচক ১ম ও ২য় দিন
শ্রী অনিল চন্দ্র দাস,সাধারন সম্পাদক,প্রহলাদপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ,জনাব শেখ শামীম, আহবায়ক আওয়ামী যুবলীগ প্রহলাদপুর।
সভাপতি,১ম ও ২য় দিন
জনাব মুখলেসুর রহমান,সিনিয়র সহ-সভাপতি ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ, জনাব মোঃ জহিরুল ইসলাম ( সুরুজ) সাধারন সম্পাদক,ভিটিপাড়া বাজার কমিটি।
বিশেষ অতিথী ১ম ও ২য় দিন
জনাব কাজী বদরুত আলম মনির,বেসরকারী পরিদর্শক গাজীেপুর জেলা কারাগার ও সাবেক ছাত্রনেতা,জনাব মোঃ শওকত আলী আকন,সভাপতি ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ।
স্বাগতিক বক্তব্য ১ম ও ২য় দিন
জনাব মঃ নজরুল ইসলাম,সহ-সভাপতি প্রহলাদপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, জনাব এ্যাড. জহিরুল ইসলাম,সহ- সাধারন সম্পাদক সেচ্ছাসবক লীগ,গাজীপুর জেলা।
উদ্ভোদক ১ম ও ২য় দিন
জনাব মোঃ আব্দুল কাদির মোল্লা,ইউ পি সদস্য ৬ নং ওয়ার্ড প্রহলাদপুর,শ্রী এ্যাড.অমর বিশ্বাস,আইন বিষয়ক সম্পাদক, প্রহলাদপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ।
অনুষ্টান সন্চালনায় ছিলেন মোঃ ফারুক হোসেন জয়,যুগ্ম আহবায়ক,প্রহলাদপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো পড়ুন
Developer Ruhul Amin